রামগঞ্জে মিজানুর রহমান আজহারীর মাহফিলে ১১ জন হিন্দু থেকে মুসলমান হওয়ার ঘটনা ছিল সাজানো নাটক।।

রামগঞ্জে মিজানুর রহমান আজহারীর মাহফিলে ১১ জন হিন্দু থেকে মুসলমান হওয়ার ঘটনা ছিল সাজানো নাটক :: বেড়িয়ে আসলো আসল ঘটনা

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার হাজীপুর পাটোয়ারী বাড়ি সংলগ্ন মাঠে গত শুক্রবার (২৪ জানুয়ারী) এ সময়ের জনপ্রিয় তাফসিরকারী মিজানুর রহমান আজহারীর মাহফিলে একই পরিবারের ১১জনকে হিন্দু থেকে মুসলমান করা হয়। কিন্তু এদিকে এলাকাবাসীর দাবী ওই পরিবার জন্মসূত্রে মুসলমান ছিল । মাহফিলে কালিমা পড়িয়ে মুসলমান হিসাবে দেখানোটা ছিল মাহফিল বাস্তবায়ন কমিটির একটি সাজানো নাটক । এতে এলাকাবাসীর মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

হিন্দু থেকে মুসলমান হিসেবে দেখানো পরিবারটির বাড়ি লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার ইছাপুর ইউনিয়নের নারায়নপুর, আঃ হাই ডাক্তার বাড়ির মনির হোসেন, পিতাঃ মজিবুল হক, মাতাঃ ফাতেমা বেগম। বর্তমানে তার ২ মেয়ে জান্নাতী, আয়েশা ও এক ছেলে আঃ করিম, হরিশচর মাদ্রাসায় ৫ম শ্রেনী ও ৪র্থ শ্রেনীতে লেখা পড়া করে।

কিন্তু মাহফিলে তাদের নামগুলো উপস্থাপন করা হয় এভাবেঃ

  • মনির হোসেন > শঙ্কর অধিকারী
  • জান্নাত > শ্যামলী
  • আয়েশা > সুমা
  • মরিয়ম > মিতালী
  • আঃ করিম > রাজা
তথ্যসূত্রে জানা যায়, বাস্তবায়ন কমিটির সাথে জড়িত কয়েকজন অসাধু লোক ও মনির হোসেন মিলে মুসলমানদের মানবিক দুর্বলতাকে কাজে লাগিয়ে সহযোগিতা নেওয়ার জন্যই হিন্দু থেকে মুসলমান হওয়ার এ নাটক সাজানো হয় ।  কেউ কেউ এ ঘটনাকে মিজানুর রহমান আজহারী ও আমীর হামযার জনপ্রিয়তা নষ্ট করার জন্য ষড়যন্ত্র হিসাবে মন্তব্য করেন।

লক্ষ্মীপুর জেলার এসপি এএইচএম কামরুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, মনির হোসেন বলে যিনি তার পরিবারসহ হিন্দু ধর্ম থেকে ইসলামে ধর্মান্তরিত হয়েছেন তারা গত বছরের অর্থাৎ ১৪ আগস্ট ২ মাসের ভিসা নিয়ে ভারতের বেনাপোল দিয়ে বাংলাদেশে বৈধভাবেই প্রবেশ করেছিলেন।

বর্তমানে তাদের ১১ জনকেই অবৈধ অভিবাসী হিসেবে চিহ্নিত করে থানায় রাখা হয়েছে। এবং তাদেরকে অতি শীঘ্রই যথাযত প্রক্রিয়ায় আবারো ভারতে পাঠিয়ে দেয়া হবে বলে জানা যায়।

Post a Comment

0 Comments