কাদিয়ানীদের রাষ্ট্রিয়ভাবে কাফের ঘোষনার দাবীতে ১৪ই মার্চ খুলনা আসছেন আল্লামা শাহ আহমদ শফী সাহেব

কাদিয়ানীদের রাষ্ট্রিয়ভাবে কাফের ঘোষনার দাবীতে ১৪ই মার্চ খুলনা আসছেন আল্লামা শাহ আহমদ শফী সাহেব




কাদিয়ানীরা কাফের কেন...???

কাদিয়ানী পরিচিতি :

১৮৪০ ইংরেজী সনে মির্জা গোলাম আহমাদ জন্ম গ্রহন করেন। পিতার নাম গোলাম মর্তুজা। ভারতের পূর্ব পাঞ্জাব প্রদেশের গুরুদাশপুর জেলার অন্তর্গত কাদিয়ানী নামক গ্রামে তার জন্ম হয়। তাদের পরিবার ছিল ইংরেজ সরকারের কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ। ১৯০৮ ইং সালে লাহোর শহরে কলেরায় আক্রান্ত হয়ে মল-মূত্রের মধ্যে পড়ে গোলাম আহমাদ মৃত্য বরন করে। তার অনুসারীদেরকে কাদিয়ানী বলা হয়। যদিও তারা নিজেদেরকে "আহমদিয়া মুসলিম জামাত" বলে পরিচয় দেয়।

মির্জা গোলাম আহমাদের কতিপয় ভ্রান্ত আকিদা:

১! সে নিজেকে মুজাদ্দেদ, ইমাম, খলিফা হওয়ার দাবী করে। (নাউজুবিল্লাহ)
২! নিজেকে ইমাম মাহদী এবং ঈসা (আঃ) এর অবতরণ বলেও দাবী করে! (নাউজুবিল্লাহ)
৩! নিজেকে সে যিল্লী বা ছায়া নবী হিসাবে দাবী করে। (নাউজুবিল্লাহ)
৪! নাজিলকৃত ৩০ পারা থেকেও তার কাছে অতিরিক্ত ২০ পারা নাজিল হওয়ার দাবী করে। (নাউজুবিল্লাহ)
৫! তাকে সৃষ্টি না করা হলে, আসমান জমিন কিছুই সৃষ্টি করা হত না। (নাউজুবিল্লাহ)
৬! নিজেকে শেষ নবী ও রাসুল হিসাবে দাবী করে। (নাউজুবিল্লাহ)
এরকম অগনিত ভ্রান্ত আকিদা রয়েছে যা তার স্ব-লিখিত কিতাবের মধ্যে রয়েছে।


কাদিয়ানী সম্প্রদায়ের আকিদা-বিস্বাসঃ

১! খতমে নবুয়াত (শেষ নবী) সংক্রান্ত মুসলমানদের আকিদা ভূল। অর্থাৎ (তাদের দাবী) রাসুল (সঃ) শেষ নবী নয়। বরং তার পরেও নবী হতে পারে। (নাউজুবিল্লাহ)
২! গোলাম আহমাদ কাদিয়ানী সমস্ত নবী রাসুল থেকে- এমনকি মুহাম্মাদ (সঃ) এর থেকেও শ্রেষ্ঠ! (নাউজুবিল্লাহ)
৩! গোলাম আহমাদ নবী,তার উপর ওহী আসত,তার উপর ৩০ পারা ছাড়াও কথিত ২০ পারা "আল কিতাবুল মুবিন" নামে নাজিল হয়েছিলো। (নাউজুবিল্লাহ)
৪! তাদের যে কিতাব আছে "আল কিতাবুল মুবিন" ২০ পারায় সমাপ্ত। সেটা কোরয়ানের থেকেও উত্তম কিতাব। (নাউজুবিল্লাহ)
৫! মির্জা গোলাম আহমাদ কাদিয়ানী সর্ব শেষ নবী তার পরে আর কোন নবী আসবে না। (নাউজুবিল্লাহ)
৬! গোলাম আহমাদ ছিলেন খোদার অবতার বা খোদা। (নাউজুবিল্লাহ)
৭! গোলাম আহমাদের নিকট জিবরাঈল (আঃ) আসতেন। (নাউজুবিল্লাহ)
৮! কাদিয়ানীদের শহত "পূর্ব পাঞ্জাব" সেটা মক্কা মদিনার থেকেও পবিত্র স্থান। (নাউজুবিল্লাহ)
৯! তাদের যে সম্মেলন হয় সেটা হজ্বেত চেয়েও উত্তম। (নাউজুবিল্লাহ)
এছাড়াও তারা আরো অনেক ভ্রান্ত আকিদায় বিশ্বাসী যার প্রমান তাদের বক্তব্য ও লিখনী।


কোরয়ান-হাদীসের আলোকে তাদের ভ্রান্তির প্রমানঃ-

♥ আল্লাহ তায়ালার বানীঃ মুহাম্মাদ (সঃ) তোমাদের কারো পিতা নন, তবে সে আল্লাহর রাসুল ও সর্ব শেষ নবী। (সূরা আহযাব, আয়াতঃ ৪০)
♥ আল্লাহ তায়ালা বলেনঃ আজ তোমাদের দ্বীনকে পরিপূর্ণ করে দিলাম।এবং তোমাদের প্রতি আমার নেয়ামত পূর্ন করলাম। আর দ্বীন হিসাবে তোমাদের জন্য ইসলামকে মনোনীত করলাম। (সূরা মায়েদা, আয়াত ৩)
♥ রাসুল (সঃ) বলেন কোন নবী প্রস্তান করলে পরবর্তিতে অন্য নবী আগমন করতেন। আর আমার পরে অন্য কোন নবী নাই। (বোখারী)
♥ আবু হুরাইরা রাঃ বর্ণনা করেন,রাসূল (সঃ) বলেন কেয়ামত কায়েম হবেনা যতহ্মন পর্যন্ত কোন মিথুক প্রতারক আবির্ভাব না ঘটবে। যাদের সংখ্যা ত্রিশের কাছাকাছি। যাদের প্রত্যেকে দাবী করবে সে নবী ও রাসুল। (বোখারী ও মুসলিম)
♥ আনাস রাঃ বলেন রাসূল (সঃ) বলেন, নবুয়াত ও রিসালাতের পরিসমাপ্তি ঘটেছে। আমার পরে কোন নবী রাসুল আসবে না। (তিরমিযি)
এরকম বহু আয়াত ও হাদীস ধারা প্রমানিত যার কিছু ধারা প্রমানিত করলাম যে তাদের ভ্রান্ত আকিদা গুলা কি।


তাই আমাদের ঈমানের দাবী রাষ্ট্রিয় ভাবে কাদিয়ানীদের কাফের অমুসলিম ঘোষনা করা হোক। যাতে করে তারা ইসলাম ধর্মের সাইনবোর্ড লাগিয়ে সাধারণ মানুষকে ভ্রান্ত করতে না পারে। সুতরাং যে তাদের স্বপহ্মে কথা বলবে সে ও কাফের। যে তাদের কাফের বলবেনা সে ও কাফের। আর যে তাদের কাফের মনে করবেনা সে ও কাফের। খতমে নবুয়াতের আন্দোলন সব থেকে বড় ঈমানের আন্দোলন। তাই আসুন ঈমানদার ভায়েরা ঐক্যবদ্ধভাবে আওয়াজ তুলি কাদিয়ানীদের রাষ্ট্রিয়ভাবে কাফের "অমুসলিম" ঘোষনা করা হোক।

উক্ত দাবীকে গন দাবীতে প্রমানিত করতে আগামী ১৪ ই মার্চ ২০২০ শনিবার সকাল ১০ টায় খুলনা ডাক বাংলা মোড় চত্বরে "খুলনা বিভাগীয় সমাবেশ" অনুষ্ঠিত হইবে। উক্ত সমাবেশে দলমত নির্বিশেষে যোগদান করুন।
প্রচারেঃ Mohammad Nur Islam,
(তাহাফফুজে খতমে নবুয়াত বাংলাদেশ বাগেরহাট জেলা শাখা)

Post a Comment

0 Comments