পুরুষের যৌন দুর্বলতা কাটানোর সহজ উপায়!





ব্যক্তিগত যৌনস্বাস্থ্যের সুরক্ষা সম্পর্কিত প্রয়োজনীয় জ্ঞানের অভাব এবং যৌবন শুরুর প্রারম্ভিক পর্যায়ে নিজ কতৃক অজ্ঞতাবশত নানবিধ ভুলত্রুটি করা সহ অনিয়মিত জীবনযাপনের ফলে আমাদের দেশের অধিকাংশ পুরুষের মাঝেই যৌনস্বাস্থ্য সংক্রান্ত নানাবিধ শারীরিক সমস্যা পরিলক্ষিত হয়ে থাকে, যা আমাদের দেশে দিন দিন খুবই প্রকট আকার ধারন করছে ।

আর তাই, যৌনস্বাস্থ্য বিষয়ক জ্ঞান অর্জনের পাশাপাশি যৌন সমস্যায় ভুক্তভোগী যুবক এবং পুরুষ ভাইদের জন্য আজ আমরা আলোচনা করছি – যৌনস্বাস্থ্য বিষয়ক শারীরিক সমস্যা কাটানোর সহজ উপায় ও শতভাগ কার্যকরী স্থায়ী চিকিৎসা বিষয়ক পরিপূর্ণ গাইডলাইন ।

যা করা একান্ত উচিত:

প্রথমেই যা করবেন, সেটা হলো একজন ভালো ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন। লজ্জা না করে নিজের সমস্ত সমস্যা খুলে বলুন ও ডাক্তারের পরামর্শ মতো প্রয়োজনীয় সকল চিকিৎসা নিন। এতে লজ্জার কিছুই নেই। একটাই জীবন। লজ্জার চাইতে নিজেকে সুস্থ ও সক্ষম রাখা জরুরি।

আপনার ডায়াবেটিস থাকলে প্রয়োজনীয় সকল নিয়ম-কানুন মেনে চলুন।

নিজের জীবনধারাকে একটি স্বাস্থ্যকর জীবনে বদলে ফেলুন।

নিয়মিত স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবার খান, ব্যায়াম করুন, রাতে পর্যাপ্ত ঘুমান, চেষ্টা করুন কাজের চাপের মাঝেও বিশ্রাম নিতে।

আপনার শরীর যখন সুস্থ ও সক্ষম থাকবে, যৌনজীবনও থাকবে সুন্দর। সঙ্গীর সঙ্গে রোমান্টিক জীবনের উন্নতি করুন।

যদি সঙ্গীকে অপছন্দ করার কারণে সমস্যা হয়ে থাকে, সেক্ষেত্রে চেষ্টা করুন সঙ্গীকে ভালবাসতে। তার সঙ্গে দূরে কোথাও নিরিবিলি বেড়াতে যান, তাকে গভীরভাবে জানার চেষ্টা করুন।




মানসিকভাবে প্রেমে পড়লে শরীরটাও সাড়া দেবে। একটা জিনিস মনে রাখবেন, বাস্তবে নারীর সঙ্গে সিনেমার নায়িকা বা পর্নস্টারদের মিল খুঁজতে যাবেন না। নিজের দিকে তাকান, নিজের সাধারণত্ব দেখুন। দেখবেন, সঙ্গীকেও আর খারাপ লাগছে না।

যা করা উচিত নয়:

  • অতিরিক্ত মাস্টারবেট করার অভ্যাস থাকলে পরিত্যাগ করুন।
  • যৌন ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য হাঁতুড়ে ডাক্তারদের শরণাপন্ন হবেন না।
  • কোনো টোটকা ব্যবহার করবেন না।
  • কোনো তেল বা ওষুধ কিছুই ব্যবহার করবেন না হাঁতুড়েদের কথায় প্রভাবিত হয়ে।

বাজারে সাময়িকভাবে যৌন ক্ষমতা বাড়ানোর কিছু ওষুধ পাওয়া যায়, যেগুলো সেবনে ২৪ ঘণ্টার জন্য যৌন ক্ষমতা বাড়ে। এ ধরনের ওষুধ মোটেও ব্যবহার করবেন না। এতে সাময়িক ক্ষমতা বাড়লেও, ক্রমশ আসলে ক্ষমতা কমতেই থাকবে।

তথ্য সূত্র: এমসিডিসি

Post a Comment

0 Comments