অবৈধ মিলনে কুমারিত্ব হারা তরুণীরা যেভাবে কুমারিত্ব ফিরা পায়!





বর্তমানে তরুণীরা বিশেষত নানারকম খেলাধুলা, সাঁতার কাটা, সাইকেল চালানো কিংবা বিয়ে আগে অবৈধ মিলনের ফলে অনেক তরুণীই কিশোরী অবস্থায় কুমারিত্ব হারান। 

কিন্তু ইদানীংকালে হারানো কুমারিত্ব ফিরে পেতে তরুণীদের কোনো সমস্যা পোহাতে হচ্ছে না। হারানো কুমারিত্ব ফিরে পেতে সময় লাগছে চল্লিশ মিনিটের মতো।

খোদ আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতেও ২০-৩০ বছর বয়সি অনেক কুমারিত্ব হারানো তরুণীদের অপারেশনের মাধ্যমে পুনরায় কুমারী বানানো হচ্ছে। কোনও কারণে সতীচ্ছদ ছিন্ন হয়ে যাওয়ার পর একটি বিশেষ অপারেশনের মাধ্যমে তা পুনঃস্থাপন করা হচ্ছে। 
কয়েকদিন আগে এরকম একটি ঘটনা ঘটে ভারতের হায়দ্রাবাদের অভিজাত এলাকা বানজারা হিলসে।




সেখানকার এক দম্পতি তাঁদের মেয়েকে নিয়ে প্লাস্টিক সার্জেনের দ্বারস্থ হন। মেয়েটি নিয়মিত ব্যাডমিন্টন খেলার ফলে তার হাইমেন ছিন্ন (সতীচ্ছদ ছিন্ন) হয়ে গেছে, সামনেই তার বিয়ে। তাই শ্বশুরবাড়িতে যাতে মান-সম্মান নিয়ে টানাটানি না হয়, সেজন্যই পুনরায় তার কুমারিত্ব ফিরে পাওয়ার জন্যই মা-বাবার এই প্রয়াস। বিবাহিত জীবনে মেয়েকে সুখী করতেই তার হায়মেনোপ্লাস্টি (সতিচ্ছদ পুনঃস্থাপন) করাতে চেয়েছিলেন তাঁরা, যাতে তাঁর স্বামী ভাবে মেয়েটি কুমারী।

এই বিশেষ অপারেশনে প্রজননতন্ত্রের ভেতর একটি নকল মেমব্রেন বসিয়ে দেওয়া হয়। অপারেশনের পর রোগীকে কয়েক সপ্তাহ পর্যন্ত ভারী কোন কাজ করতে বারণ করা হয়। তবে যেসব মহিলা বিবাহের আগে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন, শুধু তাঁরাই যে আসেন এরকম নয়। অনেক সময় শারীরিক কসরতেও ছিঁড়ে যেতে পারে মেমব্রেন। যারা নিয়মিত নাচানাচি করেন, তাঁদেরও এই সমস্যা হতে পারে। সমাজে একে দেখা হয় কুমারীত্ব হিসেবে। 

Post a Comment

0 Comments