যেসব খাবার দ্রুত পুরুষের যৌন শক্তি তিন গুণ বৃদ্ধি করে | স্থায়িত্ব বৃদ্ধির খাবারের তালিকা




অনলাইন ডেস্ক :: সুস্বাস্থ্য যৌন সুখ আর ক্ষমতা সবাই আশা করে। এরইমধ্যে আবার কারো কারো দাম্পত্য জীবনে রয়ে যায় যৌন সমস্যা। আর এর ফলেই দেখা দেয় বিচ্ছেদ আর হতাশার। 

বয়স বাড়ার সাথে সাথে যুবতী মহিলাদের যেমন যৌন ক্ষমতা হ্রাস পায় তেমনি পুরুষদের ক্ষেত্রেও একই। চল্লিশার্ধো বয়স পেরুলেই পুরুষেরা নিজের সঙ্গিনীর চাহিদা অনুযায়ী আসল যৌন সুখ দিতে পারেন না, শারীরিকভাবে তৃপ্ত করতে পারার বিশেষ অক্ষমতায় ভোগেন। বর্তমান আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞানে পুরুষের হারানো যৌন শক্তি ফিরে পেতে টেস্টোস্টেরন রিপ্লেসমেন্ট থেরাপি বা টিআরপি নামের হরমোন চিকিৎসা প্রয়োজন কিন্তু এটি একটি ব্যয়বহুল চিকিৎসা, যা সবার দ্বারা প্রায় অসম্ভব।

তাই তুলনামূলকভাবে পুরুষদের যৌন শক্তি বৃদ্ধিতে রয়েছে কিছু আয়ুর্বেদ শাস্ত্রের ঘরোয়া কৌশল। আয়ুর্বেদিক রির্সাচ এ্যান্ড ট্রিটমেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের প্রকাশিত একটি ঘোষণায় তারা এমন সব খাবারের তালিকা প্রকাশ করেছেন যা নিয়মিত সেবনে পুরুষেরা ফিরে পেতে পারে তাদের হারানো যৌন ক্ষমতা। আর এসব খাবার শরীরের পুষ্টি পূরণের পাশাপাশি যৌন অক্ষমতাকে সক্ষম করে তুলতে খুবই উপকারী।

প্রিয় পাঠক চলুন এবার জেনে নেই সেসব খাবারের তালিকা:

১। দুধ : যৌন শক্তি বৃদ্ধি এবং যৌন ক্ষমতা ধরে রাখতে দুধের গুরুত্ব অপরিহার্য। ছাগলের দুধ পুরুষের যৌন শক্তি বৃদ্ধিতে গুরু দ্বায়িত্ব পালন করে। দুধ রতিশক্তি সৃষ্টি করে দেহের শুষ্কতা দূর করে, দ্রুত হজম হয়ে খাদ্যের স্থলাভিষিক্ত হয়ে যায়, সতেজ বীর্য তৈরি করে, চেহারা উজ্জ্বল করে, দেহ থেকে অপ্রয়োজনীয় দূষিত পদার্থ বের করে দেয়, সেই সাথে মস্তিষ্কের নিউরনের উদ্দীপনা জাগিয়ে তোলে এবং সতেজতা নিয়ে আসে।

২। মধু : যৌন দুর্বলতা রোধে মধুর কার্যকারিতার গুণের কথা সবারই কম-বেশি জানা।  তাই যৌন শক্তি অটুট রাখতে প্রতি সপ্তাহে অন্তত ৩/৪ দিন এক গ্লাস পরিষ্কার গরম পানিতে ১ চা চামচ পরমাণ খাঁটি মধু মিশিয়ে পান করুন।

৩। কলা : বিদেশী দামী ফলের দিকে না ছুটে দেশী ফল খাওয়া বেশী উপকারি। পুষ্টি ও স্বাদের দিক থেকে কলা ছোট-বড় সকলের পছন্দ। কলা বহুগুণে পুষ্টি সমৃদ্ধ কারন এতে আছে উচ্চমাত্রার পটাসিয়াম ও ম্যাগনেসিয়াম। কলা শুধু পুষ্টি বাড়ায় না যৌন ইচ্ছা তীব্র করতেও কাজে দেয়। আর এতে প্রচুর পরিমাণের পটাসিয়াম থাকায় যৌন মিলনে বাড়তি শক্তি যোগায়। বিশেষ এনজাইম ব্রোমেলিয়াম থাকায় পুরুষের রতিশক্তি রোধ করতে সহায়ক।

৪। বাদাম : শারীরিক স্বাস্থ্য আর সুস্থতায় বাদাম খাওয়ার কোনো বিকল্প নেই। বাদামে প্রচুর পরিমানে পুষ্টি উপাদান বিদ্যমান, যা বিষন্নতার মতো পরিস্থিতি খুব সহজেই পরিত্রাণ দেয়। শুধু তাই নয় এতে জিংক থাকায় শুক্রাণুর পরিমাণ তুলমূলক বাড়িয়ে দেয়। প্রজন ক্ষমতা বাড়ার ও যৌনাঙ্গে স্বাস্থ্য উন্নতির জন্য ডাক্তাররা প্রায় বাদাম খাওয়ার পরামর্শ প্রদান করেন। এতে প্রয়োজনীয় মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকায় দেহে উপকারী কোলেস্টেরল প্রদান করে। হরমোন গুলো ঠিক মতো কাজ করতে এই কোলেস্টেরল অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। 

৫। ডিম : ডিম যৌন স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী একটি খাদ্য। প্রতিদিন খাবারের তালিকায় ডিম রাখবেন। এতে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন বি-৫ ও বি-৬ আছে যা শরীরের হরমোনের কার্যক্রম সচল রাখে, ক্লান্তি দূর করে এবং মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে। 

৬। তৈলাক্ত মাছ ও সামুদ্রিক মাছ : তৈলাক্ত মাছে রয়েছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এ্যাসিড। যা সুস্থ যৌন জীবনের জন্য খুবই উপকারী। এটি দেহের বহু প্রয়োজনীয় অভাব পূরণ করে। বিশেষজ্ঞরা বলেন, প্রতি সপ্তাহে অন্তত দুইবার করে তৈলাক্ত মাছ খাওয়া উচিত। তৈলাক্ত মাছের মধ্য রয়েছে বোয়াল, রুই, স্যালমন,  ট্রাউট, টুনা এবং সারডিন মাছ। এছাড়াও সামুদ্রিক মাছেও প্রচুর পরিমাণে এ্যাসিড থাকে। এই এ্যাসিড দেহে ডোপামিন হরমোন বাড়িয়ে দেয় এবং মস্তিষ্কে উদ্দীপনা জাগিয়ে তোলে। তৈলাক্ত ও সামুদ্রিক মাছ খেলে দেহে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায় ও গ্রোথ হরমোন নিঃসরণ হয়। এর ফলে যৌন স্বাস্থ্য ভালো থাকে আর যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

Post a Comment

0 Comments