মাংস নিয়ে মা-মেয়ের মারামারি, থামাতে গিয়ে ঝালমুড়ি বিক্রেতার মৃত্যু





রাজশাহী সংবাদদাতা: রাজশাহী নগরীতে আকিকার মাংস বিতরণে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে মা-মেয়ের ঝগড়া থামাতে গিয়ে মাথায় লাঠির আঘাতে ইসমাইল হোসেন (৫০) নামে এক বৃৃৃৃদ্ধ ঝালমুড়ি বিক্রেতার মৃত্যু হয়েছে।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার (১ মে) দিবাগত রাত ১টার দিকে ওই ঝালমুড়ি বিক্রেতা মারা যান। মারা যাওয়া ইসমাইল হোসেন নগরীর মতিহার থানার ধরমপুর মধ্যপাড়া মহল্লার মৃত সেকেন্দার আলীর ছেলে।

এ ঘটনায় শনিবার (২ মে) সকালে প্রতিবেশী রিনা বেগমকে একমাত্র আসামি করে মামলা হয়, পরে মামলার প্রক্কালে রিনা বেগমকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত রিনা ওই এলাকার শফিকুল ইসলামের স্ত্রী।




নগরীর মতিহার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাসুদ পারভেজ বলেন, শুক্রবার দুপুরে আকিকার মাংস বিতরণ নিয়ে রিনা বেগম তার মা সেলিনা বেগম ঝগড়ায় লিপ্ত হন। একপর্যায়ে তারা মারামারিতে জড়ান। প্রতিবেশী ইসমাইল হোসেন মা-মেয়েকে মারামারি থামাতে এগিয়ে যান। এ সময় রিনা লাঠি দিয়ে তার মাথায় আঘাত করেন। গুরুতর অবস্থায় ইসমাইলকে রামেক হাসপাতালে নেন স্বজনরা। সেখানে চিকিৎসারত অবস্থায় রাতে তার মৃত্যু হয়।


ওসি আরও বলেন, এ ঘটনায় নিহতের ছেলে জাহিদ আলম শনিবার সকালে থানায় হত্যা মামলা করেছেন। এতে রিনা বেগমকে একমাত্র আসামি করা হয়েছে। এরই মধ্যে আসামিকে গ্রেফতার করা হয়। দুপুরের পর তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ রামেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Post a Comment

0 Comments