যুবতীদের গোপন তথ্য নাভি দেখেই জেনে নিন! কিভাবে দেখুন বিস্তারিত


ডেস্ক রিপোর্ট :: পৃথিবীতে সকল নারীদের দেহ পুরুষদের কাছে রহস্যময়ী। তবে নারীদেহের আকর্ষণীয় অঙ্গ তাদের নাভী। রহস্যাবৃত নারীদের নাভীর রয়েছে গোপন তথ্য।

এ নিয়ে এমন অনেক কিছুই রয়েছে যা সম্পর্কে কারো কোনও ধারণাই নেই। শুধু তাই ননয়, পুরুষরা মেয়েদের নাভীর সৌন্দর্যে চরমভাবে পুলকিত হয়। নাভি কুন্ডলী সাধারণত বাইরের দিকেই বেরিয়ে থাকে। 

গবেষণায় জানা যায়, পৃথিবীর মাত্র ১০ শতাংশ ব্যক্তির নাভি কুন্ডলী ভিতরের দিকে থাকে। 

খোদার কি রহস্যঘন সৃষ্টি! আসলেই বড়ই অদ্ভূত মানব শরীরের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ নাভি। জন্মের পর মাতৃজঠরের সঙ্গে ছেদের মুহূর্তেই যা তৈরি হয়ে যায় খোদার রহমতে। 

মা ও শিশুর যোগসূত্র হলো এই রহস্যময় নাভী। তাই নাভির সঙ্গে জড়িয়ে নানা অবাক করা বিষয়, আজকের এই লেখনিতে আপনাদেরকে তাই জানাবো।

জানেন কি? না জানলে আপনি জেনে নিন বিস্তারিত আজকের এই তথ্যে!

নারীদের চরিত্রের গোপন কথা তাদের দেহের নাভির আকারের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে! 

কোন নারী কেমন স্বভাবের তা জানার জন্য সহজ উপায় হচ্ছে তাদের নাভি আকার-আকৃতির ধরণে। নাভির আকৃতি দেখেই একজন নারীর স্বভাব সম্পর্কে বিশদ জানা যায়।

তবে শুধুমাত্র, শারীরিক সৌন্দর্য দিয়ে নিশ্চয় সারা জীবন কাটিয়ে দেয়া সম্ভব নয়। তাই জানতে হবে কে কেমন মানুষ এবং কোন নারীর চরিত্র কেমন? 

চলুন তবে জেনে নেয়া যাক নারীদের নাভি আকৃতি দেখে গোপন তথ্য জানার বিষয়:-

১। নারীদের গোল আকৃতির নাভি:

যেসকল সুুুন্দরী নারীর নাভি গোল হয় সেই নারীরা খুব সহজ-সরল ও সাদাসিধে এবং ঘরোয়া হয়। তবে, শাস্ত্র বলছে এই নারীরা যে কারো সংসারে সুখ সমৃদ্ধি নিয়ে আসে।

২ । গভীর আকৃতির নাভি:

যে নারীদের নাভি গভীর হয় তারা সকলের সাথে বন্ধুত্ব করতে খুবই ভালোবাসেন। তাদের নিয়ে শাস্ত্র বলছে, এসকল নারীরা সংসারে সুখ ও সমৃদ্ধি নিয়ে আনে। শুধু কি তাই! এরা ভালোবাসার মানুষের সঙ্গে কখনো প্রতারণা করে না।

৩। চন্দ্রাকার আকৃতির নাভি:

পুরাণ শাস্ত্র মতে যাদের নাভি চাঁদের মতো দেখতে, সেইসব নারীদের থেকে পুরুষদের দূরে থাকাই ভালো। কারণ এরা কারো উপর বিশ্বাস করেন না। সব সময় জ্বালাতনের মধ্যে যে কারো জীবন তেজপাতা করে দিবে।

৪। নারীর নাভি যদি বাইরের দিকে বেরিয়ে থাকে:

যদি কোনো নারী দেহের নাভি বাইরের দিকে বেরিয়ে থাকে, তারা খুবই সৌভাগ্যবতী হন। যেখানে এরা যান, সেখানে ধন-সম্পত্তির কোনো কমতি থাকে না। এরা সংসারের সমৃদ্ধি বয়ে নিয়ে আসে।

৫। যে নারীর নাভির ভিতরের অংশ অনেকটা বাইরে থাকলে:  

এসকল নারীরা সেক্ষেত্রে খুব কঠোর প্রকৃতির হয়। তাদের মনও কঠোর প্রকৃতির হয়। এটাও বলা হয় যে, মা হতে গিয়ে এই নারীদের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়।

৬। যে নারীদের নাভি খুব সেন্সিটিভ হয়:

যে নারীর নাভি খুব সেন্সিটিভ তারা খুব হাঁসিখুশি প্রকৃতির হয়। কঠিন পরিস্থিতিতেও মুখের হাঁসি বজায় থাকে এদের। অল্পতে তারা তুষ্ট হয়।

সূত্রঃ ইন্টারনেট।

Post a Comment

0 Comments