কিশোরীকে অপহরণ করে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণের জেরে ইউপি সদস্য গ্রেফতার


সিলেটে এক কিশোরীকে অপহরণ করে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ করার অভিযোগে সদর উপজেলার ৮ নম্বর কান্দিগাঁও ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার) মো. সাবাজ আহমদকে (৩৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই (নিরস্ত্র) লিটন চন্দ্র নাথের নেতৃত্বে জালালাবাদ থানা পুলিশের একটি দল গোপাল এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত ইউপি সদস্য গোপাল গ্রামের হরমুজ আলীর ছেলে।

সিলেট মহানগর পুলিশের গণমাধ্যম শাখা থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে সদর উপজেলার জালালাবাদ থানার টুকেরবাজার পীরপুর জামে মসজিদের সামনে থেকে এক কিশোরীকে অপহরণ করে দক্ষিণ সুরমা থানার লালাবাজার গ্রামের এক বাসায় নিয়ে রাত ৯টার দিকে ধর্ষণ করে ইউপি সদস্য সাবাজ আহমদ। এরপর তার সঙ্গে থাকা অজ্ঞাত দুই সহযোগীও কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। সে সময় সাবাজ আহমদ মোবাইলফোনে কিশোরীর নগ্ন ভিডিও ও স্থিরচিত্র ধারণ করে।

এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার কিশোরীর মা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে সাবাজকে প্রধান আসামি করে নারী ও শিশুনির্যাতন দমন এবং পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে জালালাবাদ থানায় একটি মামলা রুজু করেন।

এ বিষয়ে জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অকিল উদ্দিন জানান, গ্রেফতারকৃত আসামিকে শুক্রবার বিধি মোতাবেক আদালতে সোপর্দ করা হবে। এছাড়া ভিকটিম কিশোরীকে বর্তমানে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে।

সূত্রঃ জাগোনিউজ

Post a Comment

0 Comments